সেরা ৮ জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরি ২০২৩

সেরা ১০ জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরি

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য অবশ্যই আপনাকে ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরি গুলো সম্পর্কে ধারণা রাখতে হবে। তাহলে আপনার ফ্রিল্যান্সিং যাত্রা অল্প সময়ের মধ্যেই সফলতা বয়ে আনবে।

ফ্রিল্যান্সিং বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। কারণ এটি ব্যক্তিগত এবং পেশাগত সম্পূর্ণ স্বাধীনতা প্রদান করে। এজন্য তরুণ প্রজন্মের কাছে ফ্রিল্যান্সিং এর চাহিদা ক্রমাগত বাড়ছে।

ফ্রিল্যান্সিং আপনাকে পছন্দমত কাজ বাছাই করতে দেয় এবং যে কোনো সময়ে কাজ করার সুযোগ দেয়। সম্পূর্ণ স্বাধীনতা নিয়ে অর্থ উপার্জন কার ভালো না লাগে!

তাছাড়া, ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ করে যে পরিমাণ অর্থ উপার্জন সম্ভব তা সাধারণ চাকরির ক্ষেত্রে দেখা যায় না। আবার ফ্রিল্যান্সিং এর ভবিষ্যৎ অনেক সম্ভাবনাময় দেখে এই সেক্টরে প্রতিনিয়তই জব অপর্চুনিটি বৃদ্ধি হচ্ছে।

আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং এর প্রতি আগ্রহী হয়ে থাকেন, তবে আপনাকে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ সমূহ সম্পর্কে জানতে হবে। অর্থাৎ, ফ্রিল্যান্সিং জব শুরু করার জন্য কোন কোন ক্যাটাগরি গুলোতে সুযোগ বেশি রয়েছে।

সেরা ৮ জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরি

ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরিগুলো বিভিন্ন ধরণের পেশাগুলোর সমন্বয়ে গঠিত। নীচে কিছু প্রধান ফ্রিল্যান্সিং ক্যাটাগরি দেখানো হলোঃ –

১. ওয়েব ডেভেলপমেন্ট

ওয়েব ডেভেলপার হলে আপনি ওয়েবসাইট বা ওয়েবঅ্যাপ্লিকেশন তৈরি এবং পরিচালনা করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে HTML, CSS, JavaScript, PHP, Python শিখতে হবে।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট অনেক বড় একটি ক্যাটাগরি। এর ক্যাটাগরিতে আরও সাব ক্যাটাগরি রয়েছে। বর্তমানে ওয়েবসাইট তৈরির উপর বিভিন্ন CMS সফটওয়্যারও রয়েছে। যেমন –

  • WordPress
  • Joomla
  • Drupal
  • Magento
  • Shopify ইত্যাদি।

আপনি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ক্যাটাগরিতে কাজ করতে এই ধরণের কোন একটি CMS বেছে নিতে পারেন। এতে করে আপনি দ্রুত সাকসেস পাবেন।

২. সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট

সফটওয়্যার ডেভেলপার হলে আপনি ডেস্কটপ অ্যাপ্লিকেশন বা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরিতে এর চাহিদা গগণচুম্বী।

এজন্য আপনাকে প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ শিখতে হবে। যেমন –

জাভা, সি++, পাইথন, সুইফ্ট, কোডন, রিয়াক্ট নেটিভ ইত্যাদি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এবং ফ্রেমওয়ার্ক শিখলে আপনি সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ক্যাটাগরিতে কাজ করতে পারেন।

৩. গ্রাফিক্স ডিজাইন

আপনি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইন, লোগো ডিজাইন, ইলাস্ট্রেশন ইত্যাদি করতে পারেন তাহলে আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন ক্যাটাগরিতে কাজ করতে পারেন।

অ্যাডোবি ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর, ইনডিজাইন ইত্যাদি সফটওয়্যার শিখলে এই ক্যাটাগরিতে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন। ফ্রিল্যান্সিং এ গ্রাফিক্স ডিজাইন অনেক জনপ্রিয় একটি ক্যাটাগরি।

৪. ডিজিটাল মার্কেটিং

ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যাটাগরিতে আপনি ওয়েবসাইট মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ইমেল মার্কেটিং, এসইও মার্কেটিং, অনলাইন বিজ্ঞাপন মার্কেটিং ইত্যাদির জন্য কাজ করতে পারেন।

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে প্রায়শই যেই টুলস গুলো ব্যবহার করা হয় –

গুগল এ্ডওয়ার্ডস, ফেসবুক অ্যাডস, মেইলচিম্প, হাবসপট, গুগল এনালিটিক্স ইত্যাদি।

৫. ভিডিও এডিটিং এবং আনিমেশন

ভিডিও এডিটিং, পোস্ট-প্রডাকশন, মোশন গ্রাফিক্স এবং আনিমেশন সম্পর্কিত কাজে আপনি এই ক্যাটাগরিতে কাজ করতে পারেন।

এই জবের জন্য আপনাকে সম্প্রতিক ভিডিও এডিটিং টুল এবং সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে, যেমন এডোবি প্রিমিয়ার প্রো, অ্যাফটার ইফেক্টস, সিনেমা 4D ইত্যাদি।

৬. কন্টেন্ট রাইটিং

ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরিতে কন্টেন্ট রাইটিং খুবই প্রফিটেবল একটি জব ক্যাটাগরি। ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে এর প্রচুর চাহিদা রয়েছে।

কন্টেন্ট রাইটিং এর উপর আপনি সার্ভিসও প্রদান করতে পারেন, আবার নিজের জন্য একটি পার্সোনাল ব্লগও তৈরি করতে পারেন। কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে বিভিন্ন উপায়ে আয় করা যায়।

৭. ডাটা এন্ট্রি এবং এক্সেল

ডাটা এন্ট্রি, ডাটা প্রসেসিং এবং এক্সেল স্প্রেডশীট ম্যানেজমেন্ট কাজের জন্য আপনি এই ক্যাটাগরিতে কাজ করতে পারেন।

এই ক্যাটাগরিতে কাজ করতে আপনাকে এক্সেলের মতো স্প্রেডশীট সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। ডাটা এন্ট্রি মূলত ছোট ছোট কাজকে বুঝায়।

ডাটা এন্ট্রির কাজ করে আপনি বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস থেকে আয় করতে পারবেন। এমনটি ডাটা এন্ট্রির উপর গুগল, ইয়াহু, ফেসবুক ইত্যাদির মতো বড় বড় টেক কোম্পানির সাথেও কাজ করার সুযোগ পাবেন।

৮. অনুবাদ

ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরিতে অনুবাদ নামে একটি ক্যাটাগরি আছে। এই ক্যাটাগরিতে কাজ করতে হলে আপনাকে বিভিন্ন ভাষার জ্ঞান থাকতে হবে।

মার্কেটপ্লেসে বিভিন্ন ভাষা অনুবাদের উপর কাজ রয়েছে। যেগুলো আপনি করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে অন্তত দুইটি ভাষার জ্ঞান থাকতে হবে।

অনুবাদ ক্যাটাগরিতে কাজ করতে হলে চেষ্টা করবেন ইংরেজি, আরবি, ফরাসি, উর্দু, হিন্দি ইত্যাদি ভাষার যে কোন দুইটা ভাষা শেখার জন্য। বিশেষ করে ইংরেজি ভাষাটা সবচেয়ে মনোযোগ দিয়ে শিখবেন।

শেষ কথাঃ

প্রিয় পাঠক, এগুলো কেবলমাত্র কিছু জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং জব ক্যাটাগরির উদাহরণ। আপনি আপনার পছন্দের ক্যাটাগরি নির্বাচন করে ফ্রিল্যান্সিং কারিয়ার শুরু করতে পারেন।

আপনার আগ্রহ, ক্যাপাবিলিটি এবং শিখতে আগ্রহী এমন বিষয়ের উপর ভিত্তি করে ক্যাটাগরি নির্বাচন করবেন। এতে আপনি দ্রুত সাকসেস পাবেন।

IT Nirman

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

Add comment

Your Header Sidebar area is currently empty. Hurry up and add some widgets.