৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ২০২২

৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ২০২২

বর্তমান বাজারে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল পাওয়া যায়। এই বাজেটের মোবাইল গুলো মূলত নতুন ব্যবহারকারীদেরকে টার্গেট করে তৈরি করা হয়েছে। বিশেষ করে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এই বাজেটের স্মার্টফোন গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ব্যস্ততম পৃথিবীতে স্মার্টফোন ছাড়া চলাচল করা প্রায় অসম্ভব। শিক্ষা ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের ব্যবহার ছড়িয়ে পড়ায় শিক্ষার্থীদের জন্যও কম্পিউটার ও স্মার্টফোনের মতো ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহারের তুমুল প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে।

কিন্তু কম্পিউটারের তুলনায় স্মার্টফোন যেহেতু বাজেট ফ্রেন্ডলি, সেহেতু স্মার্টফোনের দিকেই সবাই ঝুঁকছে। তবে আমাদের আজকের বাজেট ৫ হাজারের মধ্যেই সীমিত। আপনি যদি 5000 টাকার মধ্যে ভাল মানের এন্ড্রয়েড ফোন কিনতে চান তবে এই নিবন্ধটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আজ আমি ৫ হাজার টাকার মধ্যে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ভালো মানের মোবাইল রিভিউ করবো। আপনি যদি এই আর্টিকেলটি পড়েন তবে 5 হাজার টাকায় ভালো ফোন পাওয়াটা আপনার জন্য অনেক সহজ হবে।

৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল

5000 টাকার বাজেটে যেই ব্র্যান্ডের মোবাইল গুলো পাওয়া যায়, সেগুলো মূলত সিম্ফনি, ওয়ালটন, নোকিয়া, ম্যাক্সিমাস ইত্যাদি।

এই ব্র্যান্ড গুলো প্রায় সকলেই কাছেই পরিচিত। আমি আপনাদেরকে এই চারটি ব্র্যান্ডের মোবাইল সম্পর্কেই বলব।

চলুন জেনে নিই ৫ হাজার টাকার মধ্যে কি কি মোবাইল ফোন পাওয়া যায়।

১, Symphony i12

Brand name: সিম্ফনি
(Symphony)
Screen Size: 5.5 ইঞ্চি
Resolution: Full HD+
1440 x 720 pixels
(295 ppi)
Sim Network: 2G এবং 3G –
Dual Nano SIM
Font Camera: 5 Megapixel
Back Camera: 8 Megapixel
Processor: Quad-core,
1.3 GHz
Battery Capacity: Lithium-ion
2400 mAh
Ram এবং ROM: 1 GB র‌্যাম,
8 GB স্টোরেজ
Operating System: Android 10
(Go Edition)
Body Colors: Green,
Dark Blue
Technology: IPS Touchscreen
GPU (গ্রাফিক্স): Mali-T820 MP1
Security: Face Unlock
WLAN, GPS,
OTP, USB (v2.0),
Bluetooth (v4.2)
Radio,
Yes, সাপোর্ট করে
First Release: August 2020
Official Price: (দাম) 4,390/- টাকা
(বাংলাদেশ)

২০২০ সালের আগষ্ট মাসে রিলিজ হওয়া Symphony i12 মডেলের মোবাইলটি ৫ হাজার টাকার বাজেটে সেরা একটি মোবাইল বলা যায়।

এই মোবাইলে রয়েছে 1GB RAM এবং 8GB ফোন স্টোরেজ। মোবাইলটিতে 2G ও 3G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে।

5.5 ইঞ্চি ডিসপ্লের এই ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে Android 10 (Go Edition) মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম এবং Quad-core, 1.3 GHz এর প্রসেসর।

আরো পড়ুনঃ   মোবাইলে বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড ও A-Z সেটিং প্রক্রিয়া

GPU হিসেবে Mali-T820 MP1 এবং Lithium-ion 2400 mAh এর ব্যাটারি। মোবাইলটির ব্যাটারি ব্যাকআপ বেশ ভালোই হবে।

Symphony i12 মডেলের মোবাইলটি আকর্ষণের জায়গা হলো ক্যামেরা। সামনের ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল এবং পেছনের ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেল।

সিকিউরিটিতে ফেস লকের মতো চমৎকার ফিচার এই মোবাইলটিতে বিদ্যমান। ৫ হাজার টাকার মধ্যে এন্ড্রয়েড মোবাইল হিসেবে এটি একটি সুইটেবল চয়েজ বলা যেতে পারে।

২, Walton Primo E11

Brand name: ওয়ালটন
(Walton)
Screen Size: 5.0 ইঞ্চি
Resolution: FWVGA –

854 x 480 px

Sim Network: 2G, 3G  এবং 4G
Dual Nano SIM
Font Camera: 5 Megapixel
LED flash,
BSI & more
Back Camera: 5 Megapixel
LED flash,
BSI & more
Processor: Quad-core,
1.3 GHz
Battery Capacity: Lithium-ion
2000 mAh
Ram এবং ROM: 1 GB র‌্যাম,
16 GB স্টোরেজ
Operating System: Android Pie v9.0
(Go Edition)
Body Colors: Colors Cyan,

Electric Blue,

Jet-Black

Technology: Touchscreen
GPU (গ্রাফিক্স): PowerVR GE8100
Video Recording: HD (720p), EIS
WLAN, GPS,
OTP, USB (v2.0),
Bluetooth (v4.2)
Radio,
Yes, সাপোর্ট করে
First Release: July 2020
Official Price: (দাম) 4,299/- টাকা
(বাংলাদেশ)

Walton এর Primo E11 মডেলের এন্ড্রয়েড মোবাইলটি ২০২০ সালের জুলাই মাসে প্রথম রিলিজ হয়।

মোবাইলটির ডিসপ্লে সাইজ ৫ইঞ্চি এবং এটিতে 2G, 3G  এবং 4G নেটওয়ার্ট সাপোর্ট করবে।

এই মোবাইলের সামনের এবং পেছনের ক্যামেরা 5 মেগাপিক্সেল করে। আবার সামনে পেছনে ফ্লাশ লাইট রয়েছে।

মোবাইলটিতে Quad-core, 1.3 GHz এর প্রসেসর ব্যবহার করার পাশাপাশি এন্ড্রোয়েড অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে Android Pie v9.0 (Go Edition) ব্যবহার করা হয়েছে।

1 GB র‌্যাম ও 16 GB স্টোরেজ বিশিষ্ট এই মোবাইলের ব্যাটারি হলো Lithium-ion 2000 mAh এর।

বাংলাদেশের বাজারে কম দামে ভালো ফোনের মধ্যে এটিকে রাখা যায়। মোবাইলটির দাম মাত্র 4,299/- টাকা। একসময় এই দামে নতুন এন্ড্রয়েড মোবাইল কেনার কথা ভাবাই যেতো না।

৩, Symphony V128

Brand name: সিম্ফনি
(Symphony)
Screen Size: 4.95 ইঞ্চি
Resolution: FWVGA+

480 x 960 pixels

(217 ppi)

Sim Network: 2G এবং 3G –
Dual Nano SIM
Font Camera: 5 Megapixel

F/2.2 aperture

Back Camera: 5 Megapixel

Autofocus,

LED Flash,

f/2.2, HDR,

face detection,

Nightshot

Processor: Quad-core,
1.3 GHz
Battery Capacity: Lithium-polymer

2000 mAh

Ram এবং ROM: 1 GB র‌্যাম,
8 GB স্টোরেজ
Operating System: Android Oreo v8.1
(Go Edition)
Body Colors: Gold, Dark Blue

এবং Black

Technology: IPS Touchscreen
GPU (গ্রাফিক্স): Mali-T820
Security: Fingerprint
WLAN, GPS,
OTP, USB (v2.0),
Bluetooth (v4.2)
Radio,
Yes, সাপোর্ট করে
First Release: February 2019
Official Price: (দাম) 4,590/- টাকা
(বাংলাদেশ)

২০৯ সালে রিলিজ হওয়া Symphony V128 মডেলের মোবাইলটি আজকের রিভিউ পর্বের চমৎকার একটি মোবাইল।

এই মোবাইলটিতে রয়েছে পিঙ্গারপ্রিন্ট (Fingerprint) এর মতো আধুনিক ফিচার। যা এই বাজেটের মোবাইল গুলোতে সচারাচর পিঙ্গারপ্রিন্ট ফিচার পাওয়া যায় না।

4.95 ইঞ্চি ডিসপ্লে বিশিষ্ট এই মোবাইলটিতে একসাথে দুটি সিম ব্যবহার করা যাবে এবং এগুলো 2G এবং 3G  নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে।

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল এবং পেছনের ক্যামেরাও ৫ মেগাপিক্সেল। পেছনের ক্যামেরাই ফ্লাশ লাইট রয়েছে।

মোবাইলটির অপারেটির সিস্টেম হিসেবে Android Oreo v8.1 (Go Edition) ব্যবহার করা হয়েছে।

তাছাড়া, মোবাইলটিতে রয়েছে 1 GB র‌্যাম ও 8 GB ফোন স্টোরেজ। Lithium-polymer প্রযুক্তিতের তৈরি 2000 mAh এর ব্যাটারি এই ফোনে বিদ্যমান।

বাংলাদেশের বাজারে Symphony V128 মডেলের মোবাইলটি 4,590/- টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

৪, Nokia C1

Brand name: নোকিয়া
(NOKIA)
Screen Size: 5.5 ইঞ্চি
Resolution: 480 x 960 pixels,

18:9 ratio

(~197 ppi density)

Sim Network: 2G  এবং 3G

Dual SIM

(Nano-SIM,

dual stand-by)

Font Camera: 5 Megapixel,
LED flash
Video :
[email protected]
Back Camera: 5 MP, f/2.4, AF
LED flash
Video :
[email protected]
Processor: Quad-core,
1.3 GHz
Battery Capacity: Li-Ion
2500 mAh,
(removable)
Ram এবং ROM: 1 GB র‌্যাম,
16 GB স্টোরেজ
Operating System: Android 9.0 Pie
(Go Edition)
Body Colors: Black এবং Red
Technology: IPS LCD
Sensors: Accelerometer,

proximity

Sound: Loudspeaker,
3.5mm jack
WLAN, GPS,
OTP, USB (v2.0),
Bluetooth (v4.2)
Radio,
Yes, সাপোর্ট করে
First Release: August 2020
Available.
Released 2020,
December 11
(Go edition)
Official Price: (দাম) 5,000/- টাকা
(বাংলাদেশ)

Nokia C1 মডেলের মোবাইলটি Quad-core, 1.3 GHz প্রসেসর দিয়ে তৈরি করা হয়েছে।

মোবাইলটিতে রয়েছে 1 GB র‌্যাম ও 16 GB স্টোরেজ।

মোবাইলটির সামনে এবং পেছনে 5 Megapixel এর ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে এবং উভয় ক্যামেরায় এলইডি ফ্লাশ লাইট দেওয়া হয়েছে।

উভয় ক্যামেরা দিয়েই 720p এর ভিডিও ধারণ করা যাবে, যা 30fps এর হবে।

মোবাইলটিতে এন্ড্রোয়েড অপারেটিয় সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Android 9.0 Pie (Go Edition) ।

তাছাড়া, Li-Ion 2500 mAh এর শক্তিশালী ব্যাটারি, যা সম্পূর্ণ removable.

বাংলাদেশের বাজারে Nokia C1 মডেলের মোবাইলটি 5,000/- টাকায় পাওয়া যচ্ছে।

ব্যবহারকারীদের মধ্যে নোকিয়া মোবাইল ব্যবহারের প্রতি আলাদা একটি আকর্ষণ কাজ করে। আপনি যদি নোকিয়া মোবাইল ক্রয় করতে চান, তবে এই মোবাইলটি প্রাইজ টু পারফর্মেন্সে বেশ ভালোই।

৫, Maximus p11

Brand name: ম্যাক্সিমাস
(Maximus)
Screen Size: 5.45 ইঞ্চি
Resolution: 480 x 960 pixels
Sim Network: 2G এবং 3G –
Dual Nano SIM
Font Camera: 5 Megapixel

LED flash
Video:
[email protected]

Back Camera: 8 Megapixel

LED flash
Video:
[email protected]

Processor: Quad-core,
1.3 GHz
Battery Capacity: 3100 mAh

Non-removable

Ram এবং ROM: 2 GB র‌্যাম,
32 GB স্টোরেজ
Operating System: Android 8.1
Body Colors: Midnight Blue,
Ocean Green,
Pearl White
Browser: HTML5
Memory slot: microSD,

up to 32 GB

Features: Fingerprint
(Rear-mounted)
accelerometer,
proximity,
compass
WLAN, GPS,
OTP, USB (v2.0),
Bluetooth (v4.2)
Radio,
Yes, সাপোর্ট করে
First Release: November 2020
Official Price: (দাম) 4,990/- টাকা
(বাংলাদেশ)

২০২০ সালের নভেম্বর মাসে রিলিজ হওয়া Maximus p11 মডেলের মোবাইলটি ব্যবহারকারীদের মাঝে বেশ সাড়া ফেলেছে।

মোবাইলটির প্রধান আকর্ষণ হলো 2 GB র‌্যাম এবং 32 GB ফোন স্টোরেজ।

5.45 ইঞ্চি সাইজের ডিসপ্লে বিশিষ্ট এই মোবাইলটিতে রয়েছে 2G এবং 3G নেটওয়ার্ক।

মোবাইলটির অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Android 8.1 এবং ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 3100 mAh.

মোবাইলটির Ram ও Rom ছাড়াও আরেকটি আকর্ষণ হলো Fingerprint ফিচার। যা এই বাজেটে বিরল।

তাছাড়া, মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল এবং পেছনের ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেল। আবার এই ক্যামেরা গুলোতে রয়েছে উজ্জ্বল ফ্লাশ লাইট।

উভয় ক্যামেরা দিয়েই 720p এ 30fps এর ভিডিও ধারণ করা যাবে। মোবাইলটিতে ৩২ জিবি পর্যন্ত আলদা মেমোরি ব্যবহার করা যাবে।

Maximus p11 মডেলের মোবাইলটি বাংলাদেশের বাজারে 4,990/- টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথাঃ

প্রিয় পাঠক, আমি চেষ্টা করেছি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল রিভিউ করার জন্যে। এই মোবাইল গুলো প্রাইজ টু পারফর্মেন্সে খুবই ভালো। তাই আমার কাছে এগুলোকে কম দামে ভালো ফোন মনে হয়েছে।

তবে একটি বিষয় লক্ষ্যনীয়, মোবাইলের বাজারে প্রতিনিয়তই বিভিন্ন ফিচারে নতুন নতুন আপডেট ফোন রিলিজ হচ্ছে। ২০২২ সালে ৫ হাজার টাকার মধ্যে উপরোল্লিখিত ফোন গুলো অত্যন্ত বাজেট ফ্রেন্ডলি।

তাই আপনার বাজেট যদি ৫ হাজারের ভেতরে হয়, তবে নিঃসন্দেহে এই ফোন গুলোর যে কোনোটা বেছে নিতে পারেন। তবে Maximus p11 মডেলের মোবাইলটা 2 GB র‌্যাম ও 32 GB স্টোরেজে অন্য ৪টি মোবাইল থেকে অনেকটা এগিয়ে রয়েছে।

যাইহোক, ৫ হাজার বাজেটে ৫টি মোবাইলের পুরো স্পেসিফিকেশন আপনাদের সামনে তুলেছি। আপনারা আরো যাচাই ও বিবেচনা পূর্বক এই মোবাইল গুলো ব্যবহারের তালিকায় রাখতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ   বাংলা ও ইংরেজিতে ইমেইল লেখার নিয়ম

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

Add comment