নাথিং ফোন (Nothing Phone) কি iPhone থেকেও ভালো

নাথিং ফোন (Nothing Phone) কি iPhone থেকেও ভালো?

দীর্ঘ কয়েকমাস ধরে সারা বিশ্বেই মোবাইলের বাজারে নতুন ব্র্যান্ড নাথিং ফোন নিয়ে অনেক বেশী আলোচনা হচ্ছিল। আর এই দীর্ঘ প্রতিক্ষা এবং অনেক জল্পনা -কল্পনার পর স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদেরকে নতুন অভিজ্ঞতা দিতে বাজারে চলে এলো Nothing Phone এর প্রথম ভেরিয়েন্ট ফোন ওয়ান।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কিছুদিন আগে ঘোষণা করেছিলেন যে, Nothing Phone হবে iPhone এর বিকল্প। তাছাড়া নাথিং মোবাইল ফোনটি গাতানুগতিক অন্য সকল স্মার্টফোন থেকে একটু আলাদা ডিজাইন ও উন্নত ফিচারের সমন্বয়ে তৈরি করা হবে। অবশেষে বিশ্ববাসীর সামনে তা উন্মোচন করা হলো।

লন্ডন ভিত্তিক প্রযুক্তি কোম্পানি নাথিং এর তৈরি ফোনটি ইন্টারন্যাশানাল মার্কেটে লঞ্চ হওয়ার পাশাপাশি ইতোমধ্যেই বাংলাদেশের বাজারে চলে এসেছে। নতুন এই ফোনটির অভিজ্ঞতা নিতে অনেকে ইতোমধ্যেই প্রি-অর্ডার করছে।

ফোনটির প্রধান আকর্ষণ হলো এটি সম্পূর্ণ ট্রান্সপারেন্ট ডিজাইনের 900 LED লাইট দ্বারা নির্মিত এবং এতে রয়েছে একগুচ্ছ আকর্ষণীয় ফিচার।

নাথিং ফোনের চমকপদ যত ফিচার

Nothing এখন পর্যন্ত মাত্র একটি মডেলেরই ফোন তৈরি করেছে। যেটার নাম Nothing 1.

মিড বাজেটের Nothing এর এই ফোনটি কি সত্যিই iPhone থেকে বেটার, নাকি শুধুই মার্কেটিং পারপাসে এমনটা কথা বলা হয়েছে?

চলুন জেনে নিই Nothing Phone 1 এর পুরো স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে। তাহলে আপনিও কিছুটা আন্দাজ করতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।

ব্র্যান্ড ও মডেলঃ Nothing
Phone 1
(A063)
নেটওয়ার্কঃ 4G,
5G,
VoLTE
সিম স্লটঃ ২টি সিম।

(ন্যানো-সিম,

ডুয়াল

স্ট্যান্ড-বাই)।

ডিসপ্লে সাইজঃ 6.55 ইঞ্চি,
OLED স্ক্রিন,
1080 x 2400
পিক্সেল এবং
402 ppi
মেইন
ক্যামেরাঃ
২টি ক্যামেরা,

50 MP,
f/1.9,
24mm
(wide),
1/1.56″,
1.0µm,
PDAF,
OIS
50 MP,
f/2.2,
114˚ (
ultrawide),
1/2.76″,
0.64µm,
AF

সেলফি
ক্যামেরাঃ
16 MP,
f/2.5,
(wide),
1/3.1″,
1.0µm
প্রসেসরঃ Qualcomm
Snapdragon
778G Plus
চিপসেট,
যা 2.5 GHz,
অক্টা কোর
প্রসেসর।
র‌্যামঃ ৮ জিবি/
২ জিবি।
স্টোরেজঃ ২৮ জিবি/
২৫৬ জিবি।
অপারেটিং
সিস্টেমঃ
Android 12,
Nothing OS
গ্রাফিক্স
(GPU)
Adreno 642L
ব্যাটারিঃ Li-Po
4500 mAh
মোবাইল
চার্জিং
ফিচারঃ
ফাস্ট চার্জিং 33W,
50% in 30 min,
100% in 70 min
(advertised),ওয়্যারলেস
চার্জিং 15W,
রিভার্স
ওয়্যারলেস
চার্জিং 5W,পাওয়ার
ডেলিভারি 3.0,
কুইক চার্জ 4.0,
WLAN Wi-Fi
802.11 a/
b/g/n/ac/6,
dual-band,
হটস্পর্ট।
ব্লুটুথঃ 5.2,
A2DP, LE
জিপিএস
(GPS)
ডুয়াল ব্যান্ড
GLONASS (1),
BDS (2),
GALILEO (1),
QZSS (1)
NFC সাপোর্ট করে।
রেডিও নেই।
ইউএসবি
(USB)
টাইপ-C 2.0
সেন্সরঃ Fingerprint
(under display,
optical),
accelerometer,
proximity,
gyro,
compass ইত্যাদি।
কালারঃ সাদা ও কালো।
ডাইমেনশনঃ 159.2 x 75.8
x 8.3 mm
(6.27 x 2.98
x 0.33 in)
ওজনঃ 193.5 গ্রাম
(6.84 oz)
বিল্ড
কোয়ালিটিঃ
সামনে -পেছনে
গরিলা গ্রাস 5,
aluminum
frame

নাথিং ফোন 1 বিস্তারিত

Nothing Phone 1 (A063) – মডেলের মোবাইলটি দেখতে অনেকটা iPhone এর মতই। তবে এই ফোনটি মোবাইলের বাজারে প্রায় অনেকগুলো দিক থেকে ইউনিক।

এটি সম্পূর্ণ ট্রান্সপারেন্ট ডিজাইনের, যা 900টি LED লাইট দ্বারা নির্মাণ করা হয়েছে। যা ইউজারকে মুদ্ধ করে তুলবে।

ফোনটির প্রসেসর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকম থেকে একটি কাস্টম স্ন্যাপড্রাগন 778G+ চিপসেট। সাথে আছে Adreno 642L মডেলের GPU, যা ফোনটিকে অনেক শক্তিশালী করে তুলেছে।

ফোনটির পেছনে রয়েছে দুটি 50MP ক্যামেরা। প্রাথমিক ক্যামেরা 50MP Sony IMX766 সেন্সর বিশিষ্ট এবং 114° ফিল্ড অফ ভিউ সহ আরেকটি 50MP Samsung JN1 আল্ট্রাওয়াইড ক্যামেরা রয়েছে৷

এই ক্যামেরা গুলো দিয়ে অত্যন্ত হাই রেজুলেশনের ছবি তোলার পাশাপাশি 4k ভিডিও ধারণ করা যাবে।

এছাড়াও, ক্যামেরা ফিচার যেমন নাইট মোড, এইচডিআর, লাইভ ফটো, বোকেহ মোড, টাইমল্যাপস, স্লো-মো ইত্যাদি ফিচার রয়েছে।

ফোনটির ডিসপ্লে সাইজ 6.55-ইঞ্চি (FHD+ OLED ডিসপ্লে), যার রেজুলেশন 1080 x 2400 পিক্সেল এবং 402 ppi.

ডিসপ্লের রিফ্লেশ রেট 120Hz, যা গেমিংয়ে অনেক চমৎকার পারফর্ম করবে। এই ফিচারটি গেমারদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণও বটে।

নাথিং ওয়ানের তিনটি ভেরিয়েন্ট আছে।

  • ৮ জিবি র‌্যাম এবং২৮ জিবি ফোন স্টোরেজ।
  • ৮ জিবি র‌্যাম এবং ২৫৬ জিবি ফোন স্টোরেজ।
  • ২ জিবি র‌্যাম এবং ২৫৬ জিবি ফোন স্টোরেজ।

বাংলাদেশের বাজারে নাথিং মোবাইল ফোন ওয়ান এর ৮ জিবি র‌্যাম এবং২৮ জিবি ফোন স্টোরেজের ভেরিয়েন্টটি ইতিমেধ্যেই এসেছে।

নাথিং এর তৈরি এই ফোনটির একটি আকর্ষণের জায়গা হলো ওয়্যারলেস চার্জিং। যা এই বাজেটের ফোন গুলোতে সচারাচর দেখা যায় না।

তাছাড়া, ফোনটিতে ফাস্ট চার্জিং 33W ফিচার রয়েছে। মাত্র ৩০ মিনিটেই ৫০% চার্জ হয়ে যাবে, আবার  ৭০ মিনিটে ০০% ।

ওয়্যারলেস চার্জিং 15W, রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং 5W এবং ফাস্ট চার্জিং 33W এর।

Android-12 অপারেটিং সিস্টেমের উপর ভিত্তি করে তার নেটিভ Nothing OS তৈরি করা হয়েছে।

এছাড়াও, ফোনটির সিকিউরিটি ফিচারে রয়েছে একটি ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার এবং ফেস রিকগনিশন বৈশিষ্ট্য।

এই স্মার্টফোনটির চ্যাসিসের নিচে একটি 4,500mAh এর শক্তিশালী ব্যাটারি রয়েছে এবং এই ব্যাটারিটি মোবাইলের সাথে ফিক্সেড।

এই ফোনটি 4G, 5G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা এতে অনেক দ্রুততম ইন্টারনেট এক্সেস করতে পারবে।

তাছাড়া, নাথিং ফোন ওয়ানে অন্য সব সাধারণ ফিচার উপলব্ধ রয়েছে। যেমন, Wi-Fi, ব্লুটুথ 5.2 aptX এবং LDAC, NFC, এবং একটি USB Type-C পোর্ট।

তবে এই ফোনটিতে 3.5 মিমি হেডফোনের মতো গুরুত্বপূর্ণ কোনো জ্যাক নেই। এটা ইউজার এক্সপেরিয়েন্সে অনেক মন্দ প্রভাব ফেলবে।

তাছাড়া, ফোনটিতে রেডিও সাপোর্ট করে না। যদিওবা বর্তমানে রেডিও সচারাচর কেউ ব্যবহার করে না, তবে এই ফিচারটি থাকাটা দোষের ছিল না।

ফোনটি ব্যবহারকারীদের স্টোরেজের চাহিদা পূরণের জন্য উপযুক্ত অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ অফার করে। তাই এই ফোনটিতে আলাদা কোনো মেমোরি কার্ড ব্যবহার করার সুযোগ থাকছে না।

সত্যিকার অর্থে 128GB বা 256GB স্টোরেজ একটি স্মার্টফোনের জন্য এনাফ মনে হয়। এরচেয়ে বেশী স্টোরেজ স্মার্টফোনে কারোর প্রয়োজন হয় কিনা তা আমার বোধগম্য নয়।

যাইহোক, স্মার্টফোনের বাজারে নাথিং মোবাইল ফোন কি আইফোনের জায়গা দখল করতে পারবে কিনা তা আমাদের ভবিষ্যতই বলে দেবে।

তবে বর্তমান সিচুয়েশনের আইফোনের কম্পিটিটর হিসেবে নাথিং ফোন কতটুকু সফল, এই নিয়ে অনেক বিশ্লেষকরা নিজেদের অভিমত প্রকাশ করেছে।

আমাদের অভিমত

নাথিং এর তৈরি Phone 1 (A063) স্মার্টফোনটি বাংলাদেশের বাজারে ৩০,০০০- ৩৫,০০০/- হাজার টাকার মধ্যেই পাওয়া যাবে। যা iPhone এর তৈরি প্রায় সকল মোবাইল থেকেই অনেকটা কম।

দেখতে iPhone এর মতো এবং বিভিন্ন ফিচার বিশিষ্ট এই ফোনটি ব্যবহারকারীদের এক নতুন অভিজ্ঞতা দেবে এটা সুনিশ্চিত।

এই বাজেটে নাথিংয়ের ফোনটিতে যেই ফিচারগুলো অফার করছে, তা এখন পর্যন্ত অন্য কোনো ব্র্যান্ডের মোবাইলে পাওয়া যায়নি। তবে অদূর ভবিষ্যতে হয়ত অন্যরাও আরও আধুনিক ফিচারে সজ্জিত হবে।

ট্রান্সপারেন্ট ডিজাইনের ফোনটিতে 900টি LED লাইট ব্যবহার করা হয়েছে। এই লাইট গুলো মোবাইলের বিভিন্ন কার্যক্রমে ব্যবহার হয়।

মোবাইলটির পেছনে দিকটা সম্পূর্ণ ইউনিক। যা স্মার্টফোন জগতে নতুন একটি লুক এনে দিয়েছে। তাছাড়া, এই বাজেটে ওয়্যারলেস চার্জিং বিশিষ্ট মোবাইল ফোন অনেকটা স্বপ্নের বিষয়।

এই ফোনটি ব্যবহারে আপনি নতুন কিছু অভিজ্ঞতা পাবেন। তারমধ্যে নতুন অপারেটিং সিস্টেম Nothing OS বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য।

শেষ কথাঃ

প্রিয় পাঠক, নাথিং iPhone কে টপকাতে পারবে কিনা, এনিয়ে আমার কোনো মতামত নেই। তবে iPhone এর কম্পিটিটর হিসেবে নিজেকে প্রকাশ করার দুঃসাহস সত্যিই অদূর ভবিষ্যতে নাথিং কে অনেক দূর পর্যন্ত নিয়ে যাবে।

ইতিমধ্যেই সারাবিশ্বে নাথিংয়ের প্রথম ফোনটি নিয়ে বেশ জুড়ালো হৈ চৈ পড়ে গেছে। যা অনেক মোবাইল কোম্পানির হার্টবিট অনেক গুণ পর্যন্ত বেড়ে গেছে।

মোবাইলের বাজারে একটি নতুন ব্র্যান্ড তৈরি মানে অনেক কিছুই। এটি পুরো মোবাইলের জগতকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে। নাথিং এর এই যাত্রাতে স্বাগতম জানানো উচিত।

স্মার্টফোন বাজারে আরো সমৃদ্ধি আসোক, আরো নতুন ব্র্যান্ড তৈরি হোক। এতে করে আমাদের সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য সুখের বার্তা বয়ে আনবে ইনশাআল্লাহ।

আরো পড়ুনঃ   মোবাইলে বাংলা কিবোর্ড ডাউনলোড ও A-Z সেটিং প্রক্রিয়া

NAZIRUL ISLAM NAKIB

যত জ্ঞান-ধন করেছি অর্জন জীবনের প্রয়োজনে,
তার সবটুকুই বিলাতে চাই সৃষ্টির কল্যাণে।

Add comment